শুক্রবার, ১৪ জুন, ২০২৪

টেনশন মুক্তির কার্যকরী দোয়া


২৭ নভেম্বর ২০২৩, ১১:৫৪ পূর্বাহ্ণ 

টেনশন মুক্তির কার্যকরী দোয়া

টেনশন কি? টেনশন মুক্তির কার্যকরী দোয়া | ছবি: আজকের প্রসঙ্গ

  গুগল নিউজে ফলো করে আজকের প্রসঙ্গ এর সাথে থাকুন

মানুষের ব্যাক্তিগত, পারিবারিক কিংবা সামাজিক জীবনে নানা রকম ঘটনার মধ্যদিয়ে অতিবাহিত করতে হয়। আর এর মধ্যে জড়িয়ে থাকে বেকারত্ব, হতাশা, ব্যর্থতা, গ্লানি, কলহ, হিংসা, বিদ্বেষ, ইত্যাদি। এগুলো কখনো কখনো জীবনকে বিষিয়ে তোলে। টেনশন ও মানসিক অস্থিরতা মানুষকে কুরে কুরে খায়। স্বাভাবিক জীবনযাত্রা বাহ্যত করে। কষ্ট ও চাপা যাতনার জগদ্দল পাথর বুকে বসিয়ে দেয়। এছাড়াও নানাবিধ অসুখ-বিসুখও তৈরি করে। তাই টেনশন ও মানসিক যন্ত্রণা থেকে দূরে থাকা চাই।  

টেনশন কি?

টেনশন হল আমাদের শরীরের পরিস্থিতি, চাপ এবং জীবনের ঘটনাগুলির প্রতিক্রিয়া। টেনশন এবং চাপের জন্য অবদানকারী উপাদানগুলি একজন ব্যক্তির থেকে অন্য ব্যক্তির মধ্যে আলাদা হয়।

পরিস্থিতির উপর সামান্য বা কোন নিয়ন্ত্রণ না থাকা, অপ্রত্যাশিত বা নতুন কিছু নিয়ে কাজ করার সময় উদ্বেগ বোধ করার কারণে টেনশন হতে পারে। দীর্ঘমেয়াদি টেনশন ও চাপ, উচ্চ রক্তচাপ, স্থূলতা আর ডায়াবেটিসের মত স্বাস্থ্য সমস্যাগুলি তৈরি করতে পারে। ক্ষতিকর এ পরিস্থিতি থেকে বাঁচতে দোয়া শিখিয়েছেন মহানবী সা.।

হযরত ইমাম আহমদ রহ. আবদুল্লাহ ইবন মাসঊদ রা. থেকে বর্ণনা করেন, রসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেন, ‘যে ব্যক্তি কোনও বিপদ বা দুশ্চিন্তায় দোয়াটি পড়বে, আল্লাহ তার দুশ্চিন্তা দূর করবেন। তার বিষাদকে আনন্দে পরিণত করে দেবেন।’ (মুসনাদ আহমাদ ৪৩১৮)।

টেনশন বা দুশ্চিন্তা থেকে মুক্তির দোয়া

اللَّهُمَّ إِنِّي عَبْدُكَ، وَابْنُ عَبْدِكَ، ابْنُ أَمَتِكَ، نَاصِيَتِي بِيَدِكَ، مَاضٍ فِيَّ حُكْمُكَ، عَدْلٌ فِيَّ قَضَاؤُكَ، أَسْأَلُكَ بِكُلِّ اسْمٍ هُوَ لَكَ، سَمَّيْتَ بِهِ نَفْسَكَ، أَوْ أَنْزَلْتَهُ فِي كِتَابِكَ، أَوْ عَلَّمْتَهُ أَحَدًا مِنْ خَلْقِكَ، أَوِ اسْتَأْثَرْتَ بِهِ فِي عِلْمِ الْغَيْبِ عِنْدَكَ، أَنْ تَجْعَلَ الْقُرْآنَ رَبِيعَ قَلْبِي، وَنُورَ صَدْرِي، وَجِلَاءَ حُزْنِي، وَذَهَابَ هَمِّي

উচ্চারণ: আল্লাহুম্মা ইন্নি আব্দুকা অবনু আব্দিকা অবনু আমাতিকা, না-সিয়াতি বিয়য়াদিকা, মাদ্বিন ফিইয়্যা হুকমুকা, আদলুন ফিইয়্যা ক্বাদ্বা-উকা, আসআলুকা বিকুল্লিস্মিন হুয়া লাকা সাম্মাইতা বিহি নাফসাকা আউ আনযালতাহূ ফি কিতাবিকা, আউ আল্লামতাহূ আহাদাম মিন খালক্বিকা, আও ইস্তাসারতা বিহি ফি ইলমিল গাইবি ইন্দাক; আন তাজআলাল ক্বুরআনা রাবীআ ক্বালবি অনূরা সাদরি অজিলাআ হুযনি অযাহাবা হাম্মি।

অর্থ: হে আল্লাহ, নিঃসন্দেহে আমি তোমার দাস, তোমার দাসের পুত্র ও তোমার দাসীর পুত্র, আমার ললাটের কেশগুচ্ছ তোমার হাতে। তোমার বিচার আমার জীবনে বহাল। তোমার মীমাংসা আমার ভাগ্যলিপিতে ন্যায়সঙ্গত।

আমি তোমার নিকট তোমার প্রত্যেক সেই নামের অসিলায় প্রার্থনা করছি- যে নাম তুমি নিজে নিয়েছ, অথবা তুমি তোমার গ্রন্থে অবতীর্ণ করেছ, অথবা তোমার সৃষ্টির মধ্যে কাউকে তা শিখিয়েছ, অথবা তুমি তোমার গায়েবি ইলমে নিজের নিকট গোপন রেখেছ, তুমি কুরআনকে আমার হৃদয়ের বসন্ত কর, আমার বক্ষের জ্যোতি কর, আমার দুশ্চিন্তা দূর করার এবং আমার উদ্বেগ চলে যাওয়ার কারণ বানিয়ে দাও।

মনে রাখতে হবে, যে কারণগুলোর কারণে টেনশন হয়, সে কারণগুলো এড়িয়ে চলতে হবে। সবচেয়ে বেশি যেটা চিন্তা করবেন, আল্লাহ যা করেন আমার ভালোর জন্য করেন। কষ্টের বিষয় হলে অবশ্যই এটা আল্লাহর পক্ষ থেকে পরীক্ষা। বেশি বেশি দুইটি ছোট্ট দোয়া পড়তে হবে। আস্তাগফিরুল্লাহ, সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম। এ ছোট্ট দু’টি দোয়া বেশি বেশি পাঠ করলেও চিন্তা পেরেশানি কমে আসবে।

  গুগল নিউজে ফলো করে আজকের প্রসঙ্গ এর সাথে থাকুন
  গুগল নিউজে ফলো করে আজকের প্রসঙ্গ এর সাথে থাকুন