মঙ্গলবার, ১৮ জুন, ২০২৪

সর্বাধিক পঠিত


২০০ বছরের কুন্ডুবাড়ি মেলায় সহস্রাধিক মানুষের ভিড়


১৩ নভেম্বর ২০২৩, ১২:০৬ অপরাহ্ণ 

২০০ বছরের কুন্ডুবাড়ি মেলায় সহস্রাধিক মানুষের ভিড়
  গুগল নিউজে ফলো করে আজকের প্রসঙ্গ এর সাথে থাকুন

মাদারীপুরের কালকিনিতে শুরু হয়েছে ২০০ বছরের পুরোনো ঐহিত্যবাহী কুন্ডুবাড়ি মেলা। শ্যামা পূজাকে ঘিরে ৬ দিনব্যাপি এই মেলায় কয়েক কোটি টাকার মালামাল কেনাবেচা হয়। আর সুলভ মূল্যে পণ্য কিনতে হাজারো দর্শনার্থীর পদচারণায় মুখর থাকে মেলা প্রাঙ্গণ। গতকাল রবিবার (১২ নভেম্বর) শুরু হওয়া এই মেলা চলবে আগামী শুক্রবার (১৮ নভেম্বর) পর্যন্ত।

জানা যায়, হিন্দু ধর্মাবলম্বীদের শ্যামা পূজা উপলক্ষে মাদারীপুরের কালকিনির ভুরঘাটায় শুরু হয়েছে ৬দিন ব্যাপী কুন্ডুবাড়ি মেলা। মেলাকে ঘিরে ঢাকা-বরিশাল মহাসড়কের দুই পাশসহ প্রায় দুই কিলোমিটার এলাকা জুড়ে বসেছে সারি সারি দোকান। এসব দোকানে পাওয়া যাচ্ছে নিত্য প্রয়োজনীয় জিনিসপত্র; যা কিনতে প্রতিমুহূর্তেই ভিড় করছেন ক্রেতারা। এ মেলায় সহস্রাধিক ছোটবড় দোকান রয়েছে। এর অধিকাংশ দোকানি রাজধানী ঢাকা, নরসিংদি, বগুড়া, রাজশাহী, খুলনা, বরিশাল, টাঙ্গাইলসহ বিভিন্ন জেলায় থেকে এসেছেন। মেলার সবচেয়ে বড় আকর্ষণ কাঠের তৈরি খাট, সোফা, আলমারিসহ বিভিন্ন আসবাবপত্রও। স্বল্পদামে এসব জিনিস কিনতে পেরে খুশি দূর-দুরন্তের ক্রেতারা। আর ভালো বিক্রি হওয়ায় খুশি বিক্রেতারাও।

ক্রেতারা বলেন, সংসারের জিনিসপত্র থেকে শুরু করে সব ধরনের আসবাবপত্র এই মেলায় পাওয়া যায়। দামটাও নাগালের মধ্যে। তাই প্রতিবছর কিছু না কিছু কেনাকাটা করি। এবারও পরিবারের লোকজনের সঙ্গে মেলায় আসছি, কেনাকাটা করছি।

কুন্ডুবাড়ি মেলা কমিটির সহসভাপতি স্বপন কুমার কুন্ডু জানান, পূর্ব পুরুষের ঐতিহ্য ধরে রাখতে সবার সহযোগিতায় প্রতিবছরই এই মেলা হয়ে আসছে। দিনে দিনে এর জনপ্রিয়তা বেড়েই চলছে।

দোকানদারা জানান, এই মেলায় প্রায় ২০ বছর ধরে আমরা দোকানদারি করছি। ক্রেতাদের চাহিদামতো সব ধরনের কাঠের জিনিসপত্র নিয়ে এসেছি। ভালো কেনাবেচা হয়, তাই প্রতিবছরই মেলায় আসি। কুন্ডুবাড়ি মেলা এটা একটি ঐহিত্যবাহী মেলা। মেলায় নিয়ে আসা সব মালামাল বিক্রি হয়ে যায়। তাই কোনো চিন্তাই থাকে না। মেলায় স্বাচ্ছন্দ্যে কেনাবেচা করা হয়। কোনো ঝামেলা হচ্ছে না।

মাদারীপুরের পুলিশ সুপার মাসুদ আলম খান জানান, মেলাকে ঘিরে তিন স্তরের নিরাপত্তা ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে। দর্শনার্থী ও ভক্তবৃন্দের নিরাপত্তা দিতে সব ধরনের নির্দেশনা থানা পুলিশকে দেয়া হয়েছে।

মেলা কমিটি জানায়, বাংলা ১৭৮৩ সালে মহেষ চন্দ্র কুন্ডু এই মেলা শুরু করেন। সেই থেকে একটানা হয়ে আসছে মেলা। ঐতিহ্যবাহী মেলায় প্রতিবছর কয়েক কোটি টাকার মালামাল বিক্রি হয়। ২০০ বছরেরও বেশি সময় ধরে এভাবেই উৎসবমুখর পরিবেশে হয়ে আসছে কুন্ডুবাড়ি মেলা। ঢাকা-বরিশাল মহাসড়কের পাশে হওয়ায় স্বাচ্ছন্দ্যে কেনাবেচা করতে পারেন ক্রেতা-বিক্রেতারা।

  গুগল নিউজে ফলো করে আজকের প্রসঙ্গ এর সাথে থাকুন
  গুগল নিউজে ফলো করে আজকের প্রসঙ্গ এর সাথে থাকুন