মঙ্গলবার, ১৮ জুন, ২০২৪

সর্বাধিক পঠিত


৩য় দফা অবরোধে সারাদেশে বিক্ষোভ, ভোগান্তি সাধারন মানুষের


৩য় দফা অবরোধে সারাদেশে বিক্ষোভ, ভোগান্তি সাধারন মানুষের
  গুগল নিউজে ফলো করে আজকের প্রসঙ্গ এর সাথে থাকুন

সরকারের পদত্যাগের এক দফা দাবি আদায়ে তৃতীয় দফায় দেশব্যাপী বিএনপি ও সমমনা দলগুলোর ডাকা ২ দিনের অবরোধের প্রথম দিনে দেশের বিভিন্ন স্থানে বিক্ষোভ করেছে সমর্থনকারীরা। ফলে ভোগান্তিতে পড়তে হচ্ছে সাধারণ মানুষদের।

আজ বুধবার (০৮ নভেম্বর) সকাল সাড়ে ছয়টার দিকে নারায়ণগঞ্জের আড়াইহাজারে ঢাকা-সিলেট মহাসড়ক অবরোধ করা হয়। কান্দাইলের সড়কে আগুন জ্বালিয়ে বিক্ষোভ করে উপজেলার বিএনপির নেতাকর্মীরা। এ সময় শেখ হাসিনার পদত্যাগ ও তত্ত্বাবধায়ক সরকারের দাবিতে স্লোগান দেন তারা।

অন্যদিকে, নারায়ণগঞ্জ মহানগর বিএনপির সদস্য সচিব আবু আল ইউসুফ খান টিপুকে নগরীর কালিবাজার এলাকায় মিছিল করার প্রাক্কালে আটক করেছে জেলা গোয়েন্দা পুলিশ। অবরোধে গণপরিবহনের অভাবে চরম দুর্ভোগে পড়েছে রূপগঞ্জের শিল্পাঞ্চলের শ্রমিকেরা। রাস্তায় গণপরিবহন না পেয়ে তারা কয়েক কিলোমিটার পথ পায়ে হেঁটে এসে কর্মস্থলে যোগ দিচ্ছেন।

এদিকে, দূরপাল্লার যানবাহন চলাচল না করলেও গত দুই দফা অবরোধ থেকে স্থানীয় সড়কে আজ চলাচলরত গণপরিহনের সংখ্যা কিছুটা বেড়েছে। পাশাপাশি রাস্তায় অবরোধবিরোধী মিছিল করছে সরকারদলীয় ক্ষমতাসীন দলের নেতাকর্মীরাও।

ঢাকা-বগুড়া রুটে যাতায়াতকারী একটি বাসের চালকের সহকারী ইব্রাহিম জানান, সকাল থেকে তাদের কোনো বাস ছেড়ে যায়নি। বাস চালানোর ব্যাপারে মালিকপক্ষের নির্দেশনা থাকলেও যাত্রী সংকটের কারণে তারা বাস ছাড়তে পারছেন না। তিনি জানান, যে কয়জন যাত্রী পাওয়া যাচ্ছে তাতে বাস ছাড়লে লোকসান গুনতে হবে।

এদিকে মহাখালী বাস টার্মিনাল থেকেও দূরপাল্লার বাস ছেড়ে যাচ্ছে না। তবে কাছের দূরত্বের কিছু বাস ছেড়ে যাচ্ছে বলে জানিয়েছেন সংশ্লিষ্টরা। এছাড়া সায়েদাবাদ বাস টার্মিনাল থেকেও কাছে দূরত্বে বাস ছেড়ে যাওয়ার সংবাদ পাওয়া গেছে। তবে এখানেও যাত্রী সংকট রয়েছে।

এদিকে সকালে রাজধানী ঢাকায় যানবাহন চলাচল স্বাভাবিক দিনের তুলনায় অনেক কম দেখা গেছে। গণপরিবহনের সংখ্যাও কম। তবে ব্যক্তিগত গাড়ি ও সিএনজি অটোরিকশা চলাচল প্রায় স্বাভাবিক। বেলা বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে যান চলাচল আরও বাড়বে বলে মনে করছেন সংশ্লিষ্টরা।

যেকোনো ধরনের নাশকতা রোধে ও নিয়ন্ত্রণ জোরদার করতে সকাল থেকে নগরীর মোড়ে মোড়ে এবং গুরুত্বপূর্ণ জায়গাগুলোতে পুলিশসহ আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর কড়া অবস্থান চোখে পড়েছে।

পাবনায় রেলপথ অবরোধ করে বিক্ষোভ করেছে জেলা ছাত্রদলের নেতাকর্মীরা। ভোরে ছাত্রদলের সাবেক সাধারণ সম্পাদক তসলিম হাসান খান সুইটের নেতৃত্বে পাবনা-রাজশাহী-ঢালারচর রেলপথের জহিরপুর এলাকায় কিছু সময়ের জন্য আগুন জ্বালিয়ে অবরোধ করা হয়। এসময় অভ্যন্তরীণ সড়কগুলোতে যান চলাচল স্বাভাবিক ছিল।

সরকার পতনের একদফা দাবিতে লক্ষ্মীপুরেও চলছে বিএনপির অবরোধ। সকালে জেলার মিয়া রাস্তার মাথায় ও দালালবাজার এলাকায় বিক্ষোভ মিছিল করে সমর্থকরা। এসময় রাস্তায় গাছের গুঁড়ি ফেলে ও টায়ারে আগুন জ্বালিয়ে বিভিন্ন সড়ক, মহাসড়ক অবরোধ করেন তারা। এছাড়া, জেলার বিভিন্ন স্থানে বিক্ষোভ মিছিল করে বিএনপি-জামায়াতের নেতাকর্মীরা। সকাল থেকে জেলার বাস টার্মিনাল থেকে দূরপাল্লার কোন যানবাহন ছেড়ে যায়নি।

পাবনায় রেলপথ অবরোধ করে বিক্ষোভ করেছে জেলা ছাত্রদলের নেতাকর্মীরা। ভোরে ছাত্রদলের সাবেক সাধারণ সম্পাদক তসলিম হাসান খান সুইটের নেতৃত্বে পাবনা-রাজশাহী-ঢালারচর রেলপথের জহিরপুর এলাকায় কিছু সময়ের জন্য আগুন জ্বালিয়ে অবরোধ করা হয়। এসময় অভ্যন্তরীণ সড়কগুলোতে যান চলাচল স্বাভাবিক ছিল।

এদিকে, নাটোরে বিএনপি ও সমমনা দলগুলোর ডাকা তৃতীয় দফা অবরোধের প্রথম দিনে বন্ধ রয়েছে দুরপাল্লা ও আন্তঃজেলা গণপরিবহনগুলো। শহরের বড় হরিশপুর বাস টার্মিনাল থেকে ছেড়ে যায়নি কোনো বাস। সড়কে ছিল শুধু থ্রি হুইলারসহ অন্যান্য ছোট পরিবহন। এতে ভোগান্তিতে পড়েন স্কুল ও অফিসগামী যাত্রীরা। গন্তব্যে পৌঁছাতে গুনতে হয় দ্বিগুণ ভাড়া।

  গুগল নিউজে ফলো করে আজকের প্রসঙ্গ এর সাথে থাকুন
  গুগল নিউজে ফলো করে আজকের প্রসঙ্গ এর সাথে থাকুন