রবিবার, ১৯ মে, ২০২৪

নাশকতা করতে এলে পিটিয়ে তক্তা করে দেবেন: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী


৪ নভেম্বর ২০২৩, ১১:২৫ পূর্বাহ্ণ 

নাশকতা করতে এলে পিটিয়ে তক্তা করে দেবেন: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী
  গুগল নিউজে ফলো করে আজকের প্রসঙ্গ এর সাথে থাকুন

বিএনপির ডাকা অবরোধে যানবাহন ও মোটর শ্রমিক হতাহত বা ক্ষতিগ্রস্ত হলে সরকার ক্ষতিপূরণ দেবে বলে জানিয়েছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল। একই সঙ্গে তিনি বলেন, অবরোধে আত্মরক্ষায় প্রতিটি যানবাহন শ্রমিক সঙ্গে লাঠি রাখতে পারেন। সেই সঙ্গে কেউ নাশকতা করতে এলে পিটিয়ে তক্তা করে দেবেন বলেও মন্তব্য করেন তিনি।

গতকাল শুক্রবার (৩ নভেম্বর) রাতে রাজধানীর গাবতলী বাস টার্মিনালে শ্রমিক মালিক সমন্বয় পরিষদ আয়োজিত বিএনপি-জামায়াতের অবরোধের নামে সৃষ্ট সন্ত্রাস, নৈরাজ্য, যানবাহন পোড়ানো ও শ্রমিক হত্যার প্রতিবাদে শ্রমিক সমাবেশে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল একথা বলেন।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল বলেন, দেশের জনগণ সহিংস আন্দোলন থেকে মুখ ফিরিয়ে নিলেও বিএনপি-জায়ামাত আবারও অবোরধ দিয়েছে। এই অবরোধে তারা সন্ত্রাসী বাহিনী দিয়ে দেশের স্বাভাবিক পরিস্থিতি উত্তপ্ত করে জানমালের ক্ষতি করছে। আইন বলে, কেউ যদি আপনাকে মারতে চায় তার প্রতিহত করতে পারেন; সম্পদ রক্ষার্থে, জীবন-মান রক্ষার্থে। কাজেই আপনি প্রতিবাদ করতে পারবেন এবং তার উপরও আঘাত করতে পারবেন। সাহস করে প্রতিরোধ করতে হবে, প্রতিহত করতে হবে। আপনারা নির্বিঘ্নে-নির্ভয়ে গাড়ি চালান। সরকার আপনাদের পাশে আছে। আমি যেটা বলেছি, প্রধানমন্ত্রী আমাকে তাই বলে পাঠিয়েছেন।

হাইওয়ে পুলিশকে আরও সক্রিয়া করা হয়েছে উল্লেখ করে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, আমাদের র‌্যাব, হাইওয়ে পুলিশ, জেলা পুলিশ; সবাই সজাগ থাকবে, যাতে করে পরিবহন জগতে আপনারা কোনও অসুবিধা ফেস না করেন। আমরা সেই ব্যবস্থাটি করছি। নিরাপত্তা জোরদার করার জন্য আমরা সর্বাত্মক প্রচেষ্টা নিয়েছি। যারা ট্রাকে পণ্য বহন করে নিয়ে আসছেন, পুলিশ বাহিনীর উপর আমাদের ইনস্ট্রাকশন রয়েছে। আপনারা নিকটবর্তী থানায় যোগাযোগ করবেন এবং আপনাদের ট্রাকগুলো একসঙ্গে রওনা দেবেন। যেগুলো পুলিশের স্কট দিয়ে যেখানে যা প্রয়োজন নিরাপত্তা বাহিনী আপনাদের স্কট দিয়ে নিয়ে আসবে, যেখানে আপনারা যেতে চান।

পরিবহন শ্রমিক মালিকদের উদ্দেশে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, আমাদের আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা আপনাদের সঙ্গে আছে। নিরাপত্তা বাহিনীর পাশাপাশি আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরাও আপনাদের পাশে রয়েছে। আমরা মনে করি এই জঙ্গি-সন্ত্রাসীদের দিন শেষ হয়ে গিয়েছে। আপনারা ঘুরে দাঁড়ালেই এরা দেশে এ ধরনের আর কোনও ঘটনা ঘটাতে পারবে না। আমরা চাই একটি শান্তির দেশ সুন্দর পরিবেশ।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, আমাদের র‌্যাব, হাইওয়ে পুলিশ, জেলা পুলিশ; সবাই সজাগ থাকবে, যাতে করে পরিবহন জগতে আপনারা কোনও অসুবিধা ফেস না করেন। আমরা সেই ব্যবস্থাটি করছি। নিরাপত্তা জোরদার করার জন্য আমরা সর্বাত্মক প্রচেষ্টা নিয়েছি।

  গুগল নিউজে ফলো করে আজকের প্রসঙ্গ এর সাথে থাকুন
  গুগল নিউজে ফলো করে আজকের প্রসঙ্গ এর সাথে থাকুন