শনিবার, ১৮ মে, ২০২৪

বুবলীকে আমি ঘৃণা করি: অপু বিশ্বাস


২৬ অক্টোবর ২০২৩, ১১:৩৫ পূর্বাহ্ণ 

বুবলীকে আমি ঘৃণা করি: অপু বিশ্বাস
  গুগল নিউজে ফলো করে আজকের প্রসঙ্গ এর সাথে থাকুন

বাংলাদেশের চলচ্চিত্রের জনপ্রিয় দুই নায়িকা অপু বিশ্বাস ও শবনম বুবলী। তাদের সম্পর্কটা সাপ-নেউলে। চিত্রনায়ক শাকিব খানের সাবেক স্ত্রী দুজনেই। তবে স্ত্রী হলেও অপু-বুবলীর সঙ্গে কোনো সম্পর্ক রাখেননি শাকিব। দুজনের সঙ্গেই যতটুকু যোগাযোগ রেখেছেন সেটা শুধুই সন্তানদের জন্য।

অপু-বুবলীর সঙ্গে শাকিব সম্পর্ক না রাখলেও, অতীতের বিভিন্ন ঘটনাকে কেন্দ্র করে এখনও দুই সতীনের মধ্যে দা-কুমড়া সম্পর্ক। বিভিন্ন সময়েই একে অন্যেকে নিয়ে কটাক্ষ বা বিভিন্ন মন্তব্য করেছেন। যা তাদের মধ্যেকার সম্পর্ককে দিন দিন আরও জটিল করেছে। এবার এক সাক্ষাৎকারে অপু বিশ্বাস অকপটে জানালেন, বুবলীকে আমি ঘৃণা করি। সম্প্রতি একটি বেসরকারি টেলিভিশনে দেওয়া সাক্ষাৎকারে এমনটাই জানান এই চিত্রনায়িকা।

আলাপচারিতার এক পর্যায় বুবলীর প্রসঙ্গ এলে অপু বলেন, বুবলীকে আমি ঘৃণা করি। এমনকি বুবলী নাম নিতে আমার ব্যক্তিত্বে বাধে। তবে বুবলীকে ঘৃণা করলেও তার ছেলে বীরকে ভীষণ ভালোবাসেন বলে জানান অপু। এ প্রসঙ্গে নায়িকা বলেন, জয় আমার সন্তান, বীরও অবশ্যই আমার সন্তান। আমি ওকে অনেক পছন্দ করি। ওকে আমি মন থেকে দোয়া করি। আমি বীরকে দেখেছি সে খুব কিউট, মাশআল্লাহ।

নায়িকা আরও বলেন, আমি বহুবার বলেছি শাকিবের পৃথিবী এখন একটাই। সেই পৃথিবীতে আছে শুধু তার দুই সন্তান জয় ও বীর। সেখানে এখন আর কেউ এন্ট্রি নিতে পারবে না। দুই সন্তানের কারণে শাকিবের মধ্যে অনেক পরিবর্তন এসেছে। সে আগের চেয়ে অনেক বেশি সাইলেন্ট হয়েছে এবং দায়িত্ববান হয়েছে।

উল্লেখ্য, ২০০৮ সালে বিয়ে করেছিলেন শাকিব-অপু। ২০১৬ সালের ২৭ সেপ্টেম্বর অপুর কোল জুড়ে আসে জয়। ২০১৭ সালে ১০ এপ্রিল শাকিব-অপুর বিয়ে ও সন্তানের কথা প্রকাশ্যে আসে। দীর্ঘদিন আড়ালে থাকার পর এ দিন জয়কে সামনে আনেন অপু। একটি টেলিভিশন চ্যানেলে ছেলেকে নিয়ে হাজির হয়ে অপু জানান তার সন্তানের পিতা শাকিব। পরে ২০১৮ সালের ২০ জুলাই বিয়ে করেন শাকিব-বুবলী। ২০২০ সালের ২১ মার্চ জন্ম নেয় বুবলীর প্রথম এবং শাকিবের দ্বিতীয় সন্তান শেহজাদ। ২০২২ সালের ২৭ সেপ্টেম্বর বেবি বাম্পের ছবি প্রকাশের মাধ্যমে বিয়ে ও সন্তানের কথা প্রকাশ্যে আনেন বুবলী।

  গুগল নিউজে ফলো করে আজকের প্রসঙ্গ এর সাথে থাকুন
  গুগল নিউজে ফলো করে আজকের প্রসঙ্গ এর সাথে থাকুন