বুধবার, ২১ ফেব্রুয়ারী, ২০২৪

কোলন ক্যান্সারকে পাইলস ভেবে বিপদ ডেকে আনছেন না তো?


২৯ জানুয়ারী ২০২৪, ৭:৫৩ অপরাহ্ণ 

কোলন ক্যান্সারকে পাইলস ভেবে বিপদ ডেকে আনছেন না তো?
  গুগল নিউজে ফলো করে আজকের প্রসঙ্গ এর সাথে থাকুন

পাইলস বা অর্শ্বরোগে অনেকেই ভোগেন। তবে বেশিরভাগ মানুষই এই সমস্যাকে অবহেলা করেন। কোষ্ঠ্যকাঠিন্য, মলের সঙ্গে রক্তপাত ও মলত্যাগের অভ্যাসের পরিবর্তন হতে পারে কোলন ক্যান্সার বা মলাশয়ের ক্যান্সারের উপসর্গ।

মলের সঙ্গে রক্ত বের হওয়ার সমস্যাকে অনেকেই পাইলস মনে করেন। যদিও পাইলস বা অর্শ্বের লক্ষণও কোলন ক্যান্সারের উপসর্গের সঙ্গে মিল আছে।

চিকিৎসকদের মতে, ৬০ বছরের বেশি বয়সীদের মধ্যে কোলন ক্যান্সারের ঝুঁকি বেশি থাকলেও বর্তমানে খাদ্যাভ্যাসের পরিবর্তন, শারীরিক পরিশ্রমের অভাব, অতিরিক্ত ওজন, প্রক্রিয়াজাত খাবার খাওয়া ও অতিরিক্ত মানসিক চাপের কারণে অল্প বয়সে কোলোরেক্টাল ক্যান্সার হানা দিচ্ছে মানুষের শরীরে।

প্রাথমিক অবস্থায় ধরা পড়লে আধুনিক চিকিৎসার সাহায্যে মলদ্বার ও অন্ত্রের ক্যান্সার থেকে সুস্থ হওয়া যায়। তাই প্রাথমিক উপসর্গ দেখা দিলেই দ্রুত চিকিৎসকের পরামর্শ নিতে হবে।

পাইলস নাকি কোলন ক্যান্সার বুঝবেন কীভাবে?

হঠাৎ মলত্যাগের অভ্যাস বদলে যাওয়া, ডায়রিয়া বা কোষ্ঠকাঠিন্যের সমস্যা দেখা দিলে অবশ্যই চিকিৎসকের পরামর্শ নিতে হবে। আর মলের সঙ্গে রক্ত বের হওয়ার বিষয়কে কখনো সাধারণ ভেবে অবহেলা করবেন না।

পাইলসের রোগীদের ক্ষেত্রে মলের সঙ্গে যে রক্তপাত হয় তা সাধারণত লালচে। অন্যদিকে কোলন ক্যান্সারে আক্রান্ত রোগীদের ক্ষেত্রে এই রক্ত কালচে রঙের হয়। কালচে রঙ দেহের অভ্যন্তর থেকে নির্গত রক্তের সূচক।

আরও যেসব লক্ষণ দেখা দিতে পারে-

১. তলপেটে দীর্ঘদিন ধরে ব্যথা
২. রক্ত স্বল্পতা
৩. ক্লান্তি
৪. বারবার মলত্যাগের তাগিদ
৫. বমি বমি ভাব
৬. ওজন কমে যাওয়া ইত্যাদি।

  গুগল নিউজে ফলো করে আজকের প্রসঙ্গ এর সাথে থাকুন
  গুগল নিউজে ফলো করে আজকের প্রসঙ্গ এর সাথে থাকুন