রবিবার, ১৯ মে, ২০২৪

স্ত্রীর সঙ্গে বিচ্ছেদের পর ২০ লিটার দুধ দিয়ে যুবকের গোসল


২৪ ডিসেম্বর ২০২৩, ৭:৫৫ অপরাহ্ণ 

স্ত্রীর সঙ্গে বিচ্ছেদের পর ২০ লিটার দুধ দিয়ে যুবকের গোসল
  গুগল নিউজে ফলো করে আজকের প্রসঙ্গ এর সাথে থাকুন

বাগেরহাট প্রতিনিধি: দীর্ঘ এক যুগের দাম্পত্য জীবনের ইতি টেনে স্ত্রীর পাঠানো ডিভোর্সের কাগজে সই করেছেন আকতারুল ঢালী (৪০) নামের এক ব্যক্তি। সংসার বিচ্ছেদের সেই খবর এলাকাবাসীকে জানান দিতে এবং নিজের মনকে খুশি করতে দুধ দিয়ে গোসল করেছেন তিনি।

শুক্রবার (২২ ডিসেম্বর) নিজ বাড়িতে ২০ লিটার দুধ দিয়ে গোসল করেন আকতারুল ঢালী। এর আগে বৃহস্পতিবার (২১ ডিসেম্বর) তার স্ত্রী ওমেনুর বেগম (৩২) এর কাছ থেকে পঞ্চমবারের মতো পাঠানো তালাকনামা পেয়ে অবশেষে সেই কাগজে সই করেন তিনি।

 ডিভোর্সের কাগজ

আকতারুল ঢালী বাগেরহাট জেলার রামপাল উপজেলার উজলকুড় ইউনিয়নের চাঁদপুর গ্রামের আলতাফ ঢালীর ছেলে। আকতারুলের পরিবার সূত্রে জানা যায়, ২০১২ সালে বাগেরহাট জেলার রামপাল উপজেলার গৌরম্ভা ইউনিয়নের প্রসাদনগর গ্রামের ইস্রাফিল ইজারাদারের মেয়ে ওমেনুর বেগমের সাথে বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হন আকতারুল। তাদের সংসারে আঁখি মনি (১১) ও আরিফুল ঢালী (৬) নামের দুটি সন্তান রয়েছে। বিয়ের কিছুদিন পর থেকেই সংসারে নানা বিষয়ে স্বামী স্ত্রীর ঝামেলা হতে থাকে। একযুগের সংসারে ৫বার স্ত্রীর কাছ থেকে তালাকনামা পেয়েছেন তিনি। এর আগের চারবার স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তি ও পরিবারের লোকজনের সমঝোতায় স্ত্রীকে সংসারে ফিরিয়ে আনলেও, ৫ম বারে নিজে তালাকনামায় সই করে দুধ দিয়ে গোসল করে বিষয়টি উদযাপন করেছেন আকতারুল ঢালী। বিষয়টি দেখতে প্রতিবেশীরা ভিড় জমান আকতারুলের বাড়িতে।

প্রতিবেশী কাইয়ুম শেখ বলেন, এ ঘটনা আগে দেখিনি। খবর পেয়ে দেখতে এসেছিলাম। আকতারুল নিজের বউকে ঘরে রাখার জন্য অনেক চেষ্টা করেছে। কিন্তু পরকীয়ার কাছে হেরে গেছে সংসার ও সন্তান।

আকতারুল ঢালীর দাদি হামীদা বেগম বলেন, বিয়ের পরে ওমেনুর কয়েকবার চলে গেছে। আমরা তাকে বার বার ফিরিয়ে এনেছি। এবার গিয়ে নাকি বড়লোকের সাথে বিয়ে করেছে বলে শুনেছি।

আকতারুল ঢালীর মা আমেনা বেগম বলেন, বিয়ের পরে ওমেনুরকে নিজের মেয়ের মতো দেখেছি। বার বার চলে যাওয়ার পরেও বুঝিয়ে ওই বউ আমি ঘরে এনে দিয়েছি। কিন্তু কতবার এ অন্যায় মেনে নেওয়া যায়। ছেলে এবং নাতিপুতির জন্য আমার খুব কষ্ট হয়।

আকতারুল ঢালী (৪০)

আকতারুল বলেন, বিয়ের পর থেকে সে আমার সংসারে থেকেও অনেকবার ছেড়ে চলে গেছে ওমেনুর। এর আগেও সে চারবার ডিভোর্সের কাগজ আমার কাছে পাঠিয়েছে। দুটি সন্তানের দিকে তাকিয়ে সেই কাগজে সই করিনি। তাকে অনেকবার বুঝিয়ে সংসারে ফিরিয়ে এনেছি। অনেক নির্যাতন সহ্য করেও সংসার টিকিয়ে রাখার চেষ্টা করেছি। কিন্তু এবার সে আমাকে পঞ্চম বারের মতো ডিভোর্সের কাগজ বাড়িতে পাঠিয়েছে। আমি আর তার এ নির্যাতন সহ্য করতে রাজি না। তাই আমি তার পাঠানো ডিভোর্সের কাগজে সই করে দিয়েছি। আমি চাই আমার সাবেক স্ত্রী সুখে থাকুক। আর আমি যেন আমার দুটি সন্তানকে সুশিক্ষায় শিক্ষিত করে মানুষের মতো মানুষ করতে পারি সবার কাছে দোয়া চাই।

তিনি আরও বলেন, মূলত আমার স্ত্রীর অন্য কোথাও সম্পর্কে রয়েছে। পরকীয়ার কারণেই আমার সংসার ভাঙ্গলো।

  গুগল নিউজে ফলো করে আজকের প্রসঙ্গ এর সাথে থাকুন
  গুগল নিউজে ফলো করে আজকের প্রসঙ্গ এর সাথে থাকুন