শনিবার, ১৩ এপ্রিল, ২০২৪

রুপালি পর্দায় তারিনের নতুন যাত্রা


৭ আগস্ট ২০২৩, ৩:০১ অপরাহ্ণ 

রুপালি পর্দায় তারিনের নতুন যাত্রা
  গুগল নিউজে ফলো করে আজকের প্রসঙ্গ এর সাথে থাকুন

মুক্তিযুদ্ধের গল্প নিয়ে সিনেমা '১৯৭১ সেইসব দিন'। ছবিটি নির্মাণ করেছেন বাংলাদেশের বরেণ্য তারকা দম্পতি ডক্টর ইনামুল হক ও লাকী ইনাম দম্পতির সুযোগ্য কন্যা হৃদি হক। এই সিনেমার গল্প ভাবনা ছিল হৃদি হকের বাবা ইনামুল হকের। আর এই সিনেমার মধ্য দিয়েই বাংলাদেশের রুপালি পর্দায় অভিষেক হতে যাচ্ছে বাংলাদেশের আলোচিত মডেল-অভিনেত্রী তারিন জাহানের। যে কারণে বিশেষত তারিনভক্তরা সিনেমাটি মুক্তির অপেক্ষায় আছেন। এরই মধ্যে হৃদি হক তারিন'সহ আরও যারা সিনেমাটিতে অভিনয় করেছেন তারা সিনেমাটির প্রচারনায় ব্যস্ত হয়ে উঠেছেন।  আগামী ১৮ আগস্ট সিনেমাটি দেশের সব হলে একযোগে মুক্তি পেতে যাচ্ছে। সিনেমাটিতে বিভিন্ন চরিত্রে আরও অভিনয় করেছেন হৃদি হক,ফেরদৌস আহমেদ,লিটু আনাম,সোনিয়া হোসেইন'সহ আরও অনেকে। হৃদি হক বলেন,'গেল ২৯ মে ছিল আমার আবু্বর জন্মদিন। সেদিনই মূলত এই সিনেমার ট্রেইলার প্রদর্শনের মধ্য দিয়ে আনুষ্ঠানিকভাবে সিনেমার প্রচারনা শুরু করি। যাতে আমরা প্রতিটি মুহূর্তে আবু্বকে অনুভব করতে পারি। ট্রেইলার,টিজার দেখে মুগ্ধ হয়েছিলেন সবাই। পরে যে গানগুলো প্রকাশিত হলো সেই গানগুলোও সবার মধ্যে ভালোলাগার সৃষ্টি করেছে। ট্রেইলার এবং টিজার দেখে সবার মধ্যে যে ভালোলাগা অনুভব করেছি আমি,আমার বিশ্বাস সিনেমাটি মুক্তি পেলে দর্শকের মধ্যে আরও অনেক বেশি ভালোলাগার সৃষ্টি করবে। কারণ দর্শকের কথা মাথায় রেখেই অনেক যত্ন নিয়ে সিনেমাটি নির্মাণ করেছি। এতে যারা অভিনয় করেছেন প্রত্যেকের প্রতি আমার আন্তরিক কৃতজ্ঞতা ও ভালোবাসা। কারণ সবাই অনেক শ্রম দিয়েছেন আমার প্রথম সিনেমা নির্মাণের ক্ষেত্রে। সিনেমার নেপথ্যে যারা আছেন তাদের প্রতিও অসীম ভালোবাসা, কৃতজ্ঞতা। এখন শুধু সময়ের অপেক্ষায়। যাতে হলে হলে গিয়ে দর্শক সিনেমাটি উপভোগ করেন। এটি একটি পিরিয়ড ফিল্ম। আর সেই সময়টাতে তুলে ধরা অনেক কঠিন ছিল আমার জন্য। কিন্তু আমার সর্বাত্মক চেষ্টাও ছিল। আর একজন তারিন জাহানের মতো দারুণ অভিনেতা আমাদের ইন্ডাস্ট্রিতে খুব কম আছেন। তিনি কোন চরিত্রে অভিনয় করছেন,কোন দৃশ্যে কী করতে হবে,কেন করতে হবে-এমন নানান প্রশ্নের উত্তর কোনো পরিচালক যখন যথাযথ দিতে পারেন তার নির্দেশনায় একজন তারিন জাহান দুর্দান্ত অভিনয় করেন যা আমার সিনেমাতে তিনি করেছেন।'তারিন জাহান বলেন,'হৃদির বয়স অনুযায়ী হৃদির লেখা আমার কাছে সবসময়ই অনেক ম্যাচিউরড মনে হয়েছে। তার নির্দেশিত নাটকও আমি দেখেছি। তো সেই হৃদির প্রথম সিনেমাতে আমি আছি,এজন্য আমি সত্যিই খুশী। একজন আর্টিস্টের জন্য অনেক কম্ফোর্ট একটা জোন যে যতক্ষণ পর্যন্ত অভিনয়টা শতভাগ মনের মতো হচ্ছে না ততক্ষণ পর্যন্ত পরিচালক ওকে বলছেন না। হৃদি হচ্ছে তেমনই একজন পরিচালক। হৃদি এতটাই খুঁতখুঁতে যে আমাদের রি-সু্যটও করতে হয়েছে। হৃদি প্রি-প্রোডাকশনে অনেক সময় দিয়েছে।  সব মিলিয়ে সিনেমাটি নিয়ে আমরা সবাই আশাবাদী।'

  গুগল নিউজে ফলো করে আজকের প্রসঙ্গ এর সাথে থাকুন
  গুগল নিউজে ফলো করে আজকের প্রসঙ্গ এর সাথে থাকুন